গেছো কুমির!

ডেস্ক: কথায় বলে জলে কুমির ডাঙায় বাঘ। কিন্তু কুমির যদি জল ছেড়ে গাছে উঠে বসে? স্বভাবতই প্রশ্ন উঠবে কুমির কী গাছে চড়তে পারে? গবেষকেরা দাবি করছেন, কুমির গাছে ওঠায় রীতিমতো দক্ষ। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যে এলাকায় কুমির বেশি থাকে সে স্থানে চলার সময় পানির দিকে খেয়াল করার পাশাপাশি গাছের ওপরের দিকেও খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকেরা।

যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ভ্লাদিমির ডিনেটস জানিয়েছেন, গাছে চড়ার কোনো শারীরিক বৈশিষ্ট্য হয়তো কুমিরের নেই, কিন্তু কুমির সেই কাজটি ভালোভাবেই পারে।
অস্ট্রেলিয়া, আফ্রিকা ও উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন প্রজাতির কুমিরের ওপর গবেষণা চালিয়েছেন টেনেসি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা।

অনেকেই ধারণা করেন কুমির সাধারণত মাটি থেকে ছয় ফুট পর্যন্ত উঁচুতে উঠতে পারে। কিন্তু গবেষক ডিনেটস দাবি করেছেন, এই সরীসৃপ প্রাণীটি ৩০ ফুটেরও বেশি উঁচুতে উঠে যেতে পারে।

গাছে ওঠার উপযোগী পায়ের পাতা বা পায়ের গঠন না হলেও কুমির কীভাবে গাছে ওঠে? ডিনেটস জানিয়েছেন, কম বয়সী ছোট কুমিরগুলো খাড়াখাড়িভাবে গাছে উঠে যায় কিন্তু বড় কুমিরগুলো একটু কোনাকুনি থাকা গাছগুলো পছন্দ করে। গাছে ওঠার সময় কুমিরগুলো ধীরে ধীরে উঠতে থাকে এবং এক সময় অনেক ওপরে উঠে যায়।

এ বছরের জানুয়ারি মাসে ‘হারপেটোলোচি নোটস’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে গবেষণা বিষয়ক নিবন্ধ। কুমির নিয়ে গবেষণা করতে ডেনটিসের সঙ্গে ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার চার্লস ডারউইন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাডাম ব্রিটন, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যাথু শার্লি।

কুমির কেন গাছে চড়ে? গবেষকেরা বলছেন, নিজের এলাকা দেখতে এবং রৌদ্রস্নানের মজা নিতে গাছে উঠে বসে কুমির। গাছের ওপরে উঠলে কুমিরের পক্ষে রোদ পোহানো সহজ হয়। আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া বা শিকার ধরার লক্ষ্য নিয়েও গাছে চড়ে কুমির।

কুমিরের গাছে চড়ার এই আচরণ সম্পর্কে অনেকেই আগে থেকেই জানেন। তবে গবেষকেরা বলছেন, বিষয়টি জানা থাকলেও এ নিয়ে বিস্তারিত গবেষণা হয়নি এতদিন। এত বিষয় থাকতে কুমিরের গাছে ওঠা নিয়ে গবেষণা কেন? গবেষকেরা তাঁদের যুক্তিতে বলছেন, জীবাশ্ম নিয়ে গবেষণা করে কখনও সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া যায় না। এক দিন হয়তো কুমির বিলুপ্ত হয়ে যাবে তখন হয়তো কুমির যে গাছে উঠতে পারতো এই বিষয়টি ফসিল থেকে গবেষকেরা প্রমাণ করতে পারতেন না। বর্তমান গবেষণায় কুমিরের গাছে চড়ার বিষয়টি পরিষ্কার হয়েছে।

Facebook
Twitter
WhatsApp